হামাস নেতার সঙ্গে কথা বললেন ইরানের কুদস ফোর্স কমান্ডার

ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর (আইআরজিসি) কুদস ফোর্সের কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইসমাইল কায়ানি ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের পলিটব্যুরো প্রধান ইসমাইল হানিয়ার সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেছেন।

হামাস যখন গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলি পাশবিক হামলার প্রতিবাদে তেল আবিবসহ ইসরায়েলের বিভিন্ন শহরে ক্ষেপণাস্ত্র ও রকেট নিক্ষেপ করে যাচ্ছে, তখন এ ফোনালাপ অনুষ্ঠিত হলো।

এ সময় শত্রুদের আগ্রাসনের প্রতিবাদে সফল ও অনন্য সাধারণ জবাব দেওয়ার জন্য হামাসের ভূয়সী প্রশংসা করেন জেনারেল কায়ানি। তিনি ফিলিস্তিনের নির্যাতিত জনগোষ্ঠীর ওপর ইসরায়েলের বর্বরোচিত হামলার তীব্র নিন্দা জানান।
টেলিফোন সংলাপে ইসমাইল হানিয়া ফিলিস্তিনি জাতির সংগ্রামের প্রতি সর্বাত্মক সমর্থনের জন্য ইরানের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, আল-কুদস নিয়ে বর্তমানে যে সংঘর্ষ চলছে তা মূলত ফিলিস্তিনি জাতির ন্যায়সঙ্গত অধিকার আদায়েরই ধারাবাহিকতা।

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী এর আগে এক ভাষণে ফিলিস্তিনি জাতির স্বাধীনতা সংগ্রামের প্রতি সর্বাত্মক সমর্থন ঘোষণা করে বলেছিলেন, ফিলিস্তিনি ভূমি জবর-দখল করে প্রতিষ্ঠিত অবৈধ রাষ্ট্র ইসরায়েলের বিরুদ্ধে যে কেউ অস্ত্র হাতে নেবে, তার প্রতি তেহরান সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেবে। তিনি বলেছিলেন, এটি ইরানের সুস্পষ্ট নীতি এবং এখান থেকে একটুও পিছ-পা হবে না তেহরান।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*