শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে যে সিদ্ধান্ত জানালো সরকার

শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের করোনার টিকা দেওয়ার পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া সম্ভব হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সোমবার (১৭ মে) ভার্চ্যুয়াল মন্ত্রিসভা বৈঠক শেষে সচিবালয়ে ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব একথা বলেন।

তিনি বলেন, স্কুল-কলেজ খোলার বিষয়ে অনেক আলোচনা হয়েছে। সবারই একটা বক্তব্য আগে কম্লাই করতে হবে। সরকার নির্দেশনা দিয়ে দিয়েছে, ইউনিভার্সিটি বা কলেজগুলোর যে হোস্টেলগুলো আছে সেগুলো অলরেডি ৪০টির মতো সংস্কার হয়ে গেছে। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ভ্যাকসিন আসছে।

‘যদি ইউনিভার্সিটির ছেলেদের ভ্যাকসিনেটেড করে ফেলতে পারি তারপরে ইনশাল্লাহ তাড়াতাড়ি স্কুল-কলেজ খুলে দিতে পারবো। ’ এর আগে, করোনার সংক্রমণ গত ফেব্রুয়ারিতে কমে যাওয়ায় ঈদের পর ২৩ মে স্কুল-কলেজ ও ২৪ মে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খুলে দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় ও দেশে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট চলে আসায় আগের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসছে সরকার।

এদিকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্স্টাস ফাইনাল পরীক্ষার স্থগিত হওয়া বাকি পরীক্ষাগুলো ২৪ মে হওয়ার নির্ধারিত তারিখ থাকলেও তা নিয়ে এখনও সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি কর্তৃপক্ষ। এ বিষয়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বদরুজ্জামান বলেন, ১৮ তারিখ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় খোলার পর এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে।

গত বছরের ৮ মার্চ দেশে করোনার সংক্রমণ দেখা দেওয়ার পর থেকে ১৮ মার্চ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে ছুটি দেওয়া হয়। সেই ছুটি এখনো চলছে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*