কঠোর বিধিনিষেধ মানছে না দূরপাল্লার বাস পরিবহন মালিক শ্রমিকরা

সরকার ঘোষিত কঠোর বিধি নিষেধ মানছেন না পরিবহন মালিক- শ্রমিকরা। রাতের আধার ও দিনের আলোতেই চলাচল করছে দূরপাল্লার বাস। সোমবার (১৭ মে) ঢাকা-টাঙ্গাইল- বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে রীতিমতো চলাচলের দশ্য দেখা গেছে। এদিকে, ঈদের ছুটি শেষে কর্মস্থলে ফিরছেন মানুষ। এ সুযোগেই মহাসড়কে বেড়েছে উত্তরবঙ্গ থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী দূরপাল্লার বাসের চাপ।

সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত মহাসড়কের এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ডে সরজমিনে এসে দেখা ও স্থানীয়দের মাধ্যমে জানা যায়, উত্তরবঙ্গ থেকে রাতের আধারে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী অসংখ্য বাসের চলাচল। এছাড়া পিকআপ, মোটরসাইকেল, ব্যক্তিগত গাড়িসহ বিভিন্ন পরিবহনে কর্মস্থলে ফিরছেন মানুষ। তবে মহাসড়কের কোথাও যানজটের সৃষ্টি হয়নি। ভোগান্তিতেও পরতে হয়নি এখন পর্যন্ত কর্মস্থলে ফেরত সাধারণ মানুষদের।

এর আগে বৃহস্পতিবার (১২ মে) সকালে মহাসড়কের করটিয়া, তারটিয়া, আশেকপুর, ঘারিন্দা, রসুলপুর, পৌলি, এলেঙ্গাসহ বিভিন্ন এলাকার কোথাও গাড়ির ধীরগতি বা যানজট সৃষ্টি হয়েছিল। চরম ভোগান্তিতে পরতে হয়েছিল সাধারণ ঘরফেরা মানুষদের। তবে এবার ঢাকায় ফিরতে ঈদের আগের মতো যাত্রীদের যানজটে বা তেমন কোনো ভোগান্তিতে পড়তে হবে না বলে আশা প্রকাশ করছেন দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা।

গাজীপুর পরিবহনের বাসচালক মাহিম বলেন, ‘সকালে গাজীপুরের যাত্রী নিয়ে সিরাজগঞ্জ থেকে ছেড়ে এসেছি। সরকারিভাবে দূরপাল্লার বাস বন্ধ রাখা হলেও পয়সার জন্যই বাস চালাতে হচ্ছে। এখন পর্যন্ত কোথাও বাধার সম্মুখীন হইনি। কিন্তু পুলিশের ভয় থেকেই যায়।

এবিষয়ে এলেঙ্গা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইয়াসির আরাফাত গণমাধ্যমকর্মীদের জানান, ঢাকা-টাঙ্গাইল বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে দূরপাল্লার বাস চলাচলে সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে। বাস আসলেও তাদের ছেড়ে আসা স্থানে ফিরত পাঠানো হচ্ছে। এদিকে, বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব থানার ভারপ্রাপ্ত ইনচার্জ (ওসি) সফিকুর রহমান জানান, মহাসড়কে যানযট নেই। স্বাভাবিক মতোই চলছে। দূরপাল্লার পরিবহনের বিষয়ে জানান, কিছুকিছু চলাচল করছে, তবে সেগুলো খালি।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*