বাঁচার জন্য ওষুধ নয়, মদ চাই, দোকানের সামনে লম্বা লাইন

ভারতে প্রতিদিন ভাঙছে শনাক্ত ও মৃত্যুর রেকর্ড। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে মারা গেছেন আরো ১৭শ ৬১ জন। ভারতের রাজ্যগুলোর মধ্যে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা মহারাষ্ট্রের। আক্রান্ত প্রায় ৬০ হাজার। মৃত্যু হয়েছে ৩৫১ জনের। দিল্লিতে লকডাউন শুরুর পর পরই একদিনে মৃত্যুতে রেকর্ড হয়েছে। এদিন মৃত্যু হয়েছে ২৪০ জনের। শনাক্ত হয়েছে আরো প্রায় সাড়ে ২৩ হাজার।

এবার ভারতের রাজধানী দিল্লির একটি বারে মদ কিনতে আসা এক নারী সাংবাদিকদের এক ব্যাক্তি বলছেন, ‘৩৫ বছর ধরে মদ খাচ্ছি। ওষুধের প্রয়োজন হয় না। করোনা থেকে রক্ষা পেতে টিকায় কিছু লাভ হবে না। মদেই যা লাভ হওয়ার হবে।’ ন্ডিয়া টুডের খবরে বলা হয়, দিল্লিতে মদের দোকানগুলোর ভিড় দেখে মনেই হচ্ছে না করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে দ্বিতীয় স্থানে অবস্থান করছে ভারত।

সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে দিল্লিতে চলছে সাত দিনের লকডাউন। কিন্তু এসময় মদের দোকানগুলোর সামনে সামাজিক দূরত্ব ও মাস্ক না পরে বেপরোয়া লাইন দেখে বুঝাই যাচ্ছে লকডাউনের সাতদিন ওষুধ বা প্রয়োজনীয় জিনিসের চেয়ে বেশি প্রয়োজন মদ। ‘ওষুধ নয় মদ চাই’-এই কথাটির সত্যতা প্রমাণ করে এই দীর্ঘ লাইনে। দিল্লিতে সোমবার (১৯ এপ্রিল) রাত ১০ থেকে পরের সোমবার সকাল ৫টা পর্যন্ত লকডাউন পর্যন্ত লকডাউন থাকবে। কিন্তু এই সময়ের মধ্যে চিকিৎসা এবং খাদ্য সংক্রান্ত জরুরি পরিষেবা চালু থাকবে। তবে অন্যান্য প্রয়োজনীয় দোকানের চেয়ে বেশি ভির দেখা যাচ্ছে মদের দোকানের সামনে।

দিল্লির খান মার্কেট, গোলে মার্কেটের মতো এলাকায় দেখা যায়, একের পর এক মদের দোকানের সামনে কয়েকশ ক্রেতার ভিড়। ক্রেতাদের করোনা বিধি ভেঙে মদ কেনার লম্বা লাইনের ছবি ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

বর্তমানে দেশটিতে কোভিডে ভুগছে ২০ লাখের বেশি রোগী। ভারতে এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্ত ১ কোটি ৫৩ লাখের বেশি। মোট মৃত্যু ছাড়িয়েছে ১ লাখ ৮০ হাজার। আক্রান্তের দিক দিয়ে ভারত এখন বিশ্বে দ্বিতীয়।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*