প্রেমিকার বিরুদ্ধে মামলা করতে গিয়ে প্রেমিক আটক

নাটোরের গুরুদাসপুরে এক কিশোরীর (১৫) গর্ভে সন্তানের দায় নিচ্ছে না প্রেমিক জিল্লুর (২২)। প্রেমিকার পরিবারের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দিতে থানায় আসেন প্রেমিক জিল্লুর। আর তখনই তাকে আটক করে গুরুদাসপুর থানা পুলিশ। শনিবার (২৩ জানুয়ারি) পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের মামুদপুর পশ্চিমপাড়া গ্রামের ওই কিশোরীর প্রতিবেশী আক্কাস আলীর ছেলে জিল্লুর রহমানের সাথে এক বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।

জানা যায়, উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের মামুদপুর গ্রামের ওই কিশোরীর সঙ্গে প্রতিবেশী আক্কাস আলীর ছেলে জিল্লুর রহমানের গত এক বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছে। এক পর্যায়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ওই কিশোরীর সঙ্গে অনৈতিক মেলামেশা শুরু করেন জিল্লুর। সম্প্রতি কিশোরী গর্ভবতী হয়ে পড়েন।

এ ঘটনা এলাকায় জানাজানি হলে স্থানীয়ভাবে বিয়ে করবে মর্মে আপোষ মীমাংসা করা হয়। জিল্লুরের বাবা আক্কাস আলী এতে রাজি না হয়ে ওই কিশোরীর পরিবারকে হুমকি দেয়। স্বামীর স্বীকৃতি পেতে সন্তানসম্ভবা কিশোরী দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন। এদিকে ওই অভিযোগ থেকে বাচতে জিল্লুর শরিফার পরিবারের বিরুদ্ধে থানায় মিথ্যা মামলা করতে গেলে থানা পুলিশ জিল্লুরকে আটক করে।

ওই কিশোরী জানান, তার গর্ভে ছয় মাসের সন্তান। গর্ভের সন্তানে ও স্ত্রীর স্বীকৃতির জন্য জিল্লুরকে আইনের আওতায় আনার দাবি জানান তিনি। গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ওই কিশোরীর পরিবারের বিরুদ্ধে জিল্লুর অভিযোগ দিতে এলে তাকে আটক করা হয়। মেয়েটিকে ডেকে পাঠানো হয়েছে। সে আসলে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*