প্রে’মের টানে ঘর ছাড়লো চতুর্থ শ্রেণীর ছা’ত্রী; আবেগি প্রে’ম

প্রে’মের টানে ঘরছাড়া! জীবনে তো এমন অনেক ঘট’নাই দেখেছেন কিন্তু এমনটা কি কখনো আপনার চোখে পড়েছে যে সবে মাত্র চতুর্থ শ্রেণীতে পা রেখেছে আর তাতেই ঘরছাড়া! হ্যাঁ ঠিক এমনই একটি ঘ’টনার সূত্রপাত সাম্প্রতিক একটি গ্রামে।

অবুঝ প্রে’মের ফাঁ’দে আবেগের মু’হে পরে দুর্লভ কা’ন্ড! মাত্র ১১ বছরের মে’য়ে বিজলি বাবা রিক্সা চালক, প্রে’মের টানে ঘরছাড়া হেমায়েতপুরের আশিকের সাথে! এই বয়সে এমন আমাদের সমাজটা কোথায় গিয়ে দাঁড়িয়েছে? এই ছোট্ট বয়সে এসব ভাবা যায়? পরিবার যদি ছোট ছে’লে-মে’য়েদের ভালো শিক্ষা দেয় তাহলে এমন কিছু হয়তো ঘ’টে না।প্রত্যেকটি পরিবারের উদ্দেশ্যে বলতে চাই, আপনার ছে’লে-মে’য়েকে আদর্শ শিক্ষা দিন, ধ’র্ম শিক্ষা দিন। তাহলে আর এমন কিছু ঘ’টবে না কখনো।

স্বাস্থ্যবিধির তোয়াক্কা না করেই করো’না পরীক্ষার জন্য দীর্ঘ লাইন করো’নাভাই’রাস নমুনা পরীক্ষা ও ফলাফল নিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতা’লে (বিএসএমএমইউ) ব্যাপক ভিড় দেখা গেছে। উপসর্গ নিয়ে রাজধানীর

এমনকি আ’ক্রান্তদের জন্য আলাদা লাইন নেই। করো’না পজিটিভ নিয়েও কেউ কেউ দাঁড়াচ্ছেন সাধারণ লাইনে। এতে আ’ক্রান্তদের কাছ থেকে সংক্রমণের উচ্চ ঝুঁ’কি দেখা দিয়েছে।প্রসঙ্গত, করো’নাভাই’রাসে দেশে মোট আ’ক্রান্ত হয়েছেন ১১ হাজার ৭১৯ জন। এছাড়া মৃ’ত্যুর সংখ্যা মোট ১৮৬ জন। সারাদেশে যে পরিমাণ মৃ’ত্যু ও আ’ক্রান্ত হচ্ছে তার অর্ধেকই ঢাকার।

করো’নায় আ’ক্রান্ত হয়ে মৃ’ত মোট রোগীর মধ্যে সর্বোচ্চ ১০০ জন রাজধানী ঢাকার। রাজধানীর বাইরে ঢাকা বিভাগে আরও ৫৬ জনের মৃ’ত্যু হয়েছে। অর্থাৎ ঢাকা বিভাগেই সর্বোচ্চ ১৫৬ জনের মৃ’ত্যু হয়েছে। যা মোট মৃ’তের প্রায় ৮৪ শতাংশ। স্বাস্থ্য অধিদফতর সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।ঢাকার পাশাপাশি গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জও করো’নার ঝুঁ’কিতে রয়েছে। এই দুই জে’লায় বহু মানুষ করো’নায় আ’ক্রান্ত হয়েছেন। মৃ’ত্যুও হয়েছে বেশ কয়েক জনের।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, ৮ বিভাগের মধ্যে ঢাকা বিভাগের সর্বোচ্চ ৮ হাজার ৩৫ জন আ’ক্রান্ত হয়েছেন।ঢাকা বিভাগের মধ্যে রাজধানী ঢাকায় সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার ৬৭৪ জন এবং ঢাকা বিভাগের অন্যান্য জে’লায় দুই হাজার ৩৬১ জন আ’ক্রান্ত হন। অবশিষ্ট সাত বিভাগ মিলিয়ে আ’ক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৩ হাজার ৬৮৪ জন।

দেশে করো’নাভাই’রাসে সংক্রমিত প্রথম রোগী শনাক্ত হয় গত ৮ মা’র্চ। তার ১০ দিন পর ১৮ মা’র্চ করো’নাভাই’রাসে আ’ক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃ’ত্যু হয়।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*