দোকানদারের কাছে হেরে গেলেন আওয়ামী লীগের শীর্ষ দুই নেতা

এক যোগে শনিবার দেশের ৬০ টি পৌরসভায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (১৬ জানুয়ারি) সকাল ৮টায় শুরু হয়ে ভোটগ্রহণ চলে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। পাবনার ভাঙ্গুড়া পৌরসভা নির্বাচনে ৬ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে দোকানদারের কাছে পৌর আওয়ামী লীগের দুই শীর্ষ নেতা পরাজিত হয়েছেন। বিজয়ী কাউন্সিলরের নাম জহুরুল ইসলাম। পরাজিত দুই প্রার্থী হলেন- পৌর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম। এ নিয়ে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা বিস্মিত ও হতাশ হয়েছেন।

জানা যায়, পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ড পাথরঘাটা, সরদারপাড়া ও হাসপাতাল পাড়া মহল্লা নিয়ে গঠিত। ওয়ার্ডের মোট ভোটার সংখ্যা ১ হাজার ৬০০। নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন পাথরঘাটা পশ্চিম পাড়ার বাসিন্দা ও ভাঙ্গুড়া বাজারের কাচ ও থাই অ্যালুমিনিয়াম পণ্যের দোকানি জহুরুল ইসলাম, হাসপাতাল পাড়ার বাসিন্দা রেজাউল করিম ও সরদার পাড়া মহল্লার বাসিন্দা জাহাঙ্গীর আলম। এতে জহুরুল ইসলাম ৫৪১ ভোট পেয়ে কাউন্সিলর নির্বাচিত হন। অপর দুই প্রার্থী রেজাউল করিম ৪২৫ ও জাহাঙ্গীর আলম ৩৫৫ ভোট পান।

ভোটাররা জানায়, রেজাউল করিম আওয়ামী লীগ নেতা হলেও পরিবারসহ এলাকাবাসীর সঙ্গে সুসম্পর্ক রাখতে পারেনি। তাই তার পরাজয় ঘটেছে। আর জাহাঙ্গীর আলম অন্য এলাকা থেকে দেড় যুগ আগে এসে পৌরসভার বাসিন্দা হওয়ায় জনসমর্থন ধরে রাখতে পারেনি। তাই সাধারণ একজন দোকানদারের কাছে দুজনেরই পরাজয় হয়েছে।

পরাজিত রেজাউল করিম ভাঙ্গুড়া সরকারি হাজী জামাল উদ্দিন ডিগ্রী কলেজে নব্বইয়ের দশকে ছাত্রলীগের ব্যানারে ভিপি এবং দুইবার পৌরসভার কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছিলেন। অপরদিকে পরাজিত জাহাঙ্গীর আলম একবার কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছিলেন। শিক্ষাগত যোগ্যতার দিক থেকেও জহুরুল ইসলামের চেয়ে এই দুই আওয়ামী লীগ নেতা অনেক এগিয়ে। এদিকে সাধারণ দোকানদারের কাছে আওয়ামী লীগের দুই শীর্ষ নেতার পরাজয়ে দলের নেতাকর্মীরা বিস্মিত হয়েছেন। অনেকে ভোটারদের এমন রায়ে হতাশ হয়েছেন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*