যে কারণে লঞ্চডুবি পরিকল্পিত মনে হচ্ছে

বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবির ঘটনায় মৃ’ত পরিবারগুলোকে দেড়লাখ টাকা করে সহায়তার ঘোষণা দিয়েছে নৌ মন্ত্রণালয়। লা’শ দা’ফন-কা’ফনের জন্য তাৎক্ষণিক ১০ হাজার করে টাকা দেওয়ার কথাও জানিয়েছেন নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। এসময় নৌ প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘সিসিটিভির ফুটেজ দেখে মনে হচ্ছে এটি পরিকল্পিত হ’ত্যাকা’ণ্ড।

এটা যদি পরিকল্পিত হয় এবং সেটা যদি প্রমাণিত হয় তাহলে তাদের বি’রুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ছাড় দেওয়া হবে না।’ সোমবার (২৯ জুন) সকালে দু’র্ঘটনা কবলিত এলাকা পরিদর্শনে এসে এসব কথা বলেন নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী। খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘এটি অত্যন্ত বেদনাদায়ক, দুঃ’খজনক ঘ’টনা।

দু’র্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে মন্ত্রণালয় থেকে একজন যুগ্ম সচিবের নেতৃত্বে ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী ৭ দিনের মধ্যে কমিটিকে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আমরা নি’হ’তদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাই। পরিবারগুলোর পাশে বিআইডব্লিউটিএ থাকবে।

তাৎক্ষণিকভাবে দা’ফনের জন্য ১০ হাজার করে দেওয়া হচ্ছে এবং পরবর্তীতে পরিবারগুলোকে দেড়লাখ টাকা করে সহায়তা দেওয়া হবে।’ দু’র্ঘটনার তদন্ত আলোর মুখ দেখে না-সাংবাদিকদের এমন অ’ভিযোগের বিষয় তিনি বলেন, ‘তদন্ত হয় কিন্তু সাংবাদিকরা ফলো করেন না। অতীতে অনেকগুলো তদন্ত হয়েছে।’ তিনি বলেন, ‘ঘটনা দেখলে মনে হয় এটা প’রিকল্পিত। ইতোমধ্যে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়ছে। ৭ দিনের মধ্যে তদন্ত রিপোর্ট জমা দেবে।

ইতোমধ্যে চালককে গ্রে’ফতার করেছে নৌ-পুলিশ। আমরা সঠিক ঘটনা অনুসন্ধান করে দায়ী ব্যক্তিদের বি’রুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।’ প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘লঞ্চটি স্বাস্থ্যবিধি মেনেই যাত্রী নিয়েছিল। স্বাস্থ্যবিধি মানার পরও তাদের সলিল সমাধি হলো। লঞ্চে নিরাপত্তা সরঞ্জাম ছিল কিনা তা আমরা তদন্ত করে দেখবো। সেখানে কেউ দায়ী হলে ব্যবস্থা হবে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*