ঢাকা ফেরত ১২ জন হোম কোয়ারেন্টিনে

রাজশাহীতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ৪০ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনের আওতায় আনা হয়েছে। এর মধ্যে ঢাকা থেকে আসা পাঁচজন রয়েছেন। এর আগের দিন ঢাকা থেকে আসা সাতজনকে হোম কোয়ারেন্টিনে নেয়া হয়। বুধবার সকালে রাজশাহী জেলা সিভিল সার্জন ডা. এনামুল হক এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, রাজশাহী জেলায় বর্তমানে ৪৪৮ জন হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন। হোম কোয়ারেন্টিনের মধ্যে সিটি করপোরেশন এলাকাতে রয়েছেন ১৩০ জন। এছাড়াও বাঘা উপজেলায় ৩১ জন, চারঘাটে ৪৬ জন, পুঠিয়ায় ৪৬ জন, দুর্গাপুরে ২০ জন, বাগমারায় ৩৯, মোহনপুরে ৬২, তানোরে ১৯, পবায় ২৫ ও গোদাগাড়ীতে ৩০ জন। তবে এখনও রাজশাহীতে কোনো করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়নি।

রাজশাহী সিভিল সার্জন কার্যালয়ের দেওয়া তথ্যানুযায়ী, জেলায় নতুন করে কোয়ারেন্টিনে ৪০ জনের মধ্যে পার্শ্ববর্তী ভারত থেকে এসেছেন ২৮ জন, কাতার থেকে দুইজন, দুবাই থেকে দুইজন, চীন থেকে একজন, অস্টেলিয়া থেকে একজন, থ্যাইল্যান্ড থেকে একজন ও ঢাকা থেকে এসেছেন পাঁচজন।

এনামুল হক বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় সিটি করপোরেশন এলাকায় হোম কোয়ারেন্টিনে আনা হয়েছে ২০ জনকে। এছাড়া বাঘায় পাঁচজন, দুর্গাপুরে চারজন, বাগমারায় দুইজন, মোহনপুরে ছয়জন ও গোদাগাড়ীতে তিনজনকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। ১৪ দিন তারা বাড়িতেই থাকবেন। তিনি জানান, গত ১০ মার্চ থেকে রাজশাহীতে এক হাজার ৩৭ জনকে হোম কোয়ারেন্টিনের আওতায় আনা হয়েছে। এরমধ্যে ১৪ দিন শেষ হওয়ায় ৫৮৯ জনকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে।

হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা ১৪ দিন বাড়ির বাইরে বের হতে পারবেন না। থানা পুলিশের সহায়তায় তাদের বাড়িগুলো এরইমধ্যে চিহ্নিত করে লাল নিশান দিয়ে ‘লকডাউন’ করে দেওয়া হয়েছে। সিভিল সার্জন কার্যালয় ও স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে নিয়মিতভাবে তাদের মনিটরিং করা হচ্ছে বলেও উল্লেখ করেন জেলা সিভিল সার্জন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*