যুক্তরাষ্ট্র বুঝেছে মধ্যপ্রাচ্যের রাজনৈতিক জ্যামিতি বদলে গেছে

ইরানের জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের সচিব আলি শামখানি দাবি করেছেন, এশিয়ার পশ্চিমাঞ্চলীয় অনেক দেশই বিশ্বাস করে, মধ্যপ্রাচ্যে যুক্তরাষ্ট্রের আনাগোনা না থাকলেই অঞ্চলটি বেশি নিরাপদ থাকবে।ইরানি সংবাদমাধ্যম পার্স টুডে জানিয়েছে, ‘আমেরিকাবিহীন মধ্যপ্রাচ্য নিরাপদতর এলাকা’ শীর্ষক একটি নিবন্ধে এ অঞ্চলে নিরাপত্তাহীনতা সৃষ্টিতে মার্কিন ভূমিকা ও তাদের নীতির ব্যর্থতার নানা দিক তুলে ধরেছেন আলি শামখানি।

আলি শামখানি বলেছেন, ধারণা করা হচ্ছে, অর্জিত অভিজ্ঞতার আলোকে মার্কিন প্রশাসন বুঝতে পেরেছে যে বিশ্বের বিশেষত, মধ্যপ্রাচ্যের রাজনৈতিক হিসাব-নিকাশ বদলে গেছে এবং এ অঞ্চলে ক্ষমতার ভারসাম্যেও ব্যাপক পরিবর্তন এসেছে। ইরানি এই কর্মকর্তা এও দাবি করেন, মার্কিন সরকার ব্যাপক প্রচার চালালেও এখন আর আন্তর্জাতিক অঙ্গনে শ্রেষ্ঠত্ব দাবি করার মতো অবস্থায় নেই।

শামখানি মনে করেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র বুঝতে পেরেছে তাদের সামনে এখন দুটি পথ খোলা রয়েছে। তা হলো, হয় তাদের উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের জন্য বিপুল অর্থ ব্যয় করতে হবে, যদিও এর সাফল্যের ব্যাপারে নিশ্চয়তা নেই। অথবা বর্তমান বিশ্বের বাস্তবতা মেনে বিরাট ব্যয়ভার কিংবা ক্ষতির হাত থেকে নিজেকে রক্ষা করতে হবে যুক্তরাষ্ট্রকে।’

“অন্যভাবে বললে, মার্কিন প্রশাসন বুঝতে পেরেছে যে বর্তমান বাস্তবতায় তাদের পরাশক্তি তকমা ধরে রাখার কোনো কারণ নেই। এবং অতীতের সুদিন ফেরানোও তাদের জন্য অসম্ভব। যুক্তরাষ্ট্র নিজেদের কৌশলগত প্রকল্পগুলো, যেমন—‘মধ্যপ্রাচ্যে বিভেদ সৃষ্টি করা’, ‘শতাব্দীসেরা চুক্তি’, ‘ইরানের শাসনব্যবস্থা বদলে দেওয়া’, ‘সৌদি আরবকে মধ্যপ্রাচ্যের জাঁহাবাজে পরিণত করা’, ‘ইয়েমেন যুদ্ধ’, ‘আফগানিস্তানে শান্তি আনা’, ‘সিরিয়া সংকট’ ইত্যাদি বাস্তবায়ন করতে যে ব্যর্থ হয়েছে, তা সবার কাছে প্রমাণ হয়ে গেছে।”

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*