বাসের জানলা দিয়ে বমি, ধড় থেকে ছিটকে পড়লো মাথা

চলন্ত বাসে জানালা দিয়ে মাথা বের করে বমি করতে গিয়ে ইলেকট্রিক পোলের ধাক্কায় মৃত্যু হয়েছে এক তরুণীর। নিহত তরুণীর নাম ভানু মণ্ডল ( ২৪ )। তার বাড়ি ভারতের মুর্শিদাবাদ জেলার জিয়াগঞ্জে।পুলিশের বরাত দিয়ে একাধিক ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, লালবাগ হাসপাতালে ফল বিক্রি করতেন ভানু। প্রতিদিন সকালে বাসে করেই জিয়াগঞ্জ থেকে লালবাগ আসতেন তিনি। রোববারও জিয়াগঞ্জ থেকে বহরমপুরগামী একটি বেসরকারি বাসে ওঠেন ভানু। লালবাগে আসার পথে নাকুরতলার আগেই তার শরীর খারাপ শুরু হয়। তারপরেই বাসের জানালা দিয়ে বাইরে মাথা বের করে বমি করতে থাকেন তিনি।

তখনই পাশের একটি ইলেকট্রিক পোলে ধাক্কা লাগে ভানুর মাথা। ঘটনাস্থলেই ধড় থেকে মাথা আলাদা হয়ে গিয়ে রাস্তায় পড়ে যায়। সঙ্গে সঙ্গে চিৎকার করে ওঠেন বাসযাত্রীরা। চারদিকে রক্তে ভেসে যায়। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় ভানুর। উত্তেজিত জনতা বাসের চালককে ধরে মারধর শুরু করে। কোনো রকমে সে পালিয়ে যায় ঘটনাস্থল থেকে।

খবর পেয়ে সেখানে যায় লালবাগ থানার পুলিশ। তারাই ভানুর মরদেহ নিয়ে লালবাগ হাসপাতালে যায়। সেখানে ময়নাতদন্ত করা হবে।যাত্রী ও স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, গাফিলতি রয়েছে চালকের। তাদের দাবি, ওই এলাকায় এমনিতেই রাস্তা বেশি প্রশস্ত নয়। তার মধ্যেই বেশ জোরে বাস চালান চালকরা। ফলে প্রায়ই ছোটখাটো দুর্ঘটনা ঘটে। আর এবার একজনের মৃত্যুই হলো।বাসটিকে আটক করেছে পুলিশ। তার মালিককে খবর দেয়া হয়েছে। চালকের খোঁজ শুরু করেছে পুলিশ।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*